বিকাল ৩:৫৯ | বৃহস্পতিবার | ২রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৭ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শুল্ক প্রত্যাহারের আশায় ছয় দিন ধরে চাল খালাস বন্ধ

শুল্ক প্রত্যাহার-সংক্রান্ত খবরে বেনাপোল স্থলবন্দরে চাল আমদানি ও খালাস বন্ধ রেখেছেন আমদানিকারকরা। গত ছয় দিন ধরে চাল খালাস না করে এই স্থলবন্দরের ভেতর পড়ে আছে প্রায় ৩১০টি ট্রাক।

দেশের বাজারে চালের দাম স্বাভাবিক রাখতে ও দ্রুত চালের মজুদ বাড়াতে চাল আমদানিতে পুরোপুরি শুল্ক প্রত্যাহারের বিষয়ে খাদ্য মন্ত্রণালয় থেকে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে চিঠি দেওয়া হয়। গত ৭ আগস্ট মিডিয়ায় এমন খবর প্রকাশের পর থেকেই বিন্দর থেকে চাল খালাস বন্ধ রেখেছেন আমদানিকারকরা।

চাল আমদানিতে শুল্কহার যখন ২৮ ভাগ ছিল, তখন বেনাপোল বন্দর দিয়ে চালের আমদানি প্রায় বন্ধ ছিল। গত ২০ জুন চাল আমদানিতে শুল্কহার কমিয়ে ১০ ভাগ নির্ধারণ করার পর বন্দর দিয়ে চালের আমদানি বাড়ে। বর্তমানে বন্দর দিয়ে প্রতিদিন ১০০ ট্রাক চাল আমদানি হচ্ছে।

কিন্তু গত কদিন ধরে চাল আমদানি কিংবা আমদানিকৃত চাল খালাস করছেন না আমদানিকারকরা। বেনাপোল বন্দরের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট আ. খালেক জানান, আমদানিকারকরা ট্রাকগুলো থেকে চাল খালাস না নিয়ে শুল্ক প্রত্যাহার-সংক্রান্ত খবরের বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করছেন।

বেনাপোল সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মফিজুর রহমান সজন জানান, দেশের বাজারে চালের দাম সহনীয় পর্যায়ে রাখতে সরকার চাল আমদানিতে আরোপিত শুল্ক প্রত্যাহার করে নেবে এমন আলোচনা চলছে গত কয়েক দিন ধরে। এর ওপর গত ৭ আগস্ট সোমবার এ-সংক্রান্ত খবর পত্রিকায় প্রকাশিত হওয়ায় বেনাপোল বন্দরের আমদানিকারকরা ভারত থেকে আমদানিকৃত চাল খালাস করছেন না। কারণ সরকার চাল আমদানির শুল্ক প্রত্যাহার করে নিলে তারা ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। বন্দরে তিন শতাধিক চালের ট্রাক আটকা পড়ে আছে।

এ ছাড়া শুল্ক প্রত্যাহারের খবরে বন্দর দিয়ে চালের আমদানি কমিয়ে দিয়েছেন আমদানিকারকরা। এর ওপর আবার গত বুধবারে চাল আমদানিতে শুল্কহার ১০ ভাগ থেকে কমিয়ে ৫ ভাগ করতে মন্ত্রিসভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে খবর প্রকাশিত হয়। কিন্তু এর কোনো কাগজপত্র বা আদেশের কপি কাস্টমসে আসেনি। এতে করে আমদানিকারকরা দ্বিধায় আছেন।

বর্তমানে চাল আমদানিতে যে ১০ ভাগ শুল্ক আরোপ রয়েছে, তাতে প্রতি কেজি চালে তিন থেকে সাড়ে তিন টাকা শুল্ক দিতে হচ্ছে। যদি এই ১০ ভাগ শুল্ক প্রত্যাহার করে নেয়া হয়, তাহলে দেশের বাজারে চালের দাম কিছুটা কমতে পারে।

বেনাপোল বন্দরের উপ-পরিচালক রেজাউল ইসলাম জানান, আগে বেনাপোল বন্দর দিয়ে গড়ে প্রতিদিন ১০০ ট্রাক চাল আমদানি হতো এবং প্রতিদিনই সেসব চাল খালাস হয়ে যেত। কিন্তু চাল আমদানিতে আরোপিত ১০ ভাগ শুল্ক প্রত্যাহার করবে সরকার এমন খবর প্রকাশের পর গত সোমবার থেকেই এই বন্দর থেকে চাল খালাস করছেন না আমদানিকারকরা।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» আলীমের পিতার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন আ’লীগের কেন্দ্রীয় নেতা আবুল ফজল রাজু।

» কুমিল্লার ঘটনায় ইকবালকে যারা পাগল বলছে তারাই সাঈদীকে চাঁদে দেখেছে আবুল ফজন রাজু।

» শেখ রাসেলের ৫৮তম জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় নেতা আবুল ফজল রাজু

» বর্তমান সরকার সব ধর্মীয় সম্প্রদায়ের মানুষের কল্যাণে পর্যাপ্ত কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে- পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী

» শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন- মেম্বার মোরশেদ আলম।

» শারদীয় দূর্গাপূজা উপলক্ষে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মাঝে আনছর আলীর উপহার সামগ্রী বিতরণ।

» পুনরায় পাপ্পা গাজী ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক হওয়ায় অভিনন্দন জানিয়েছেন শরাফত আলী।

» পুনরায় পাপ্পা গাজী ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক হওয়ায় অভিনন্দন জানিয়েছেন দীন মোহাম্মদ দীলু।

» পাপ্পা গাজী ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক হওয়ায় আবুল ফজল রাজুর অভিনন্দন

» হাসিনা গাজীর জন্মদিনে দীন মোহাম্মদ দীলুর শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন

» বিনা স্বার্থে যে সবার সাথে তাল মিলিয়ে চলে সে ব্যক্তিত্বহীন – লিখন রাজ

» রূপগঞ্জে ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে ও দুই পা ভেঙ্গে ১০ লাখ টাকা লুট

» পাট ও বস্ত্রমন্ত্রীর পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্মদিন উযযাপন আনছর আলীর।

» রাজধানীর খিলক্ষেতে ‘মোহাম্মদী ডেইরী এন্ড সুইটস্’ শো-রুমের তৃতীয় শাখা শুভ উদ্বোধন

» প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিনে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন দীন মোহাম্মদ দীলু

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

বাসা#৪৯, রোড#০৮, তুরাগ, ঢাকা।
বার্তা কক্ষ : 01781804141
ইমেইল : timesofbengali@gmail.com

 

© এ.আর খান মিডিয়া ভিশন এর অঙ্গ প্রতিষ্ঠান

      সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার টাইমস্ অফ বেঙ্গলী .কম

কারিগরি সহযোগিতায় এ.আর খান হোস্ট

,

শুল্ক প্রত্যাহারের আশায় ছয় দিন ধরে চাল খালাস বন্ধ

শুল্ক প্রত্যাহার-সংক্রান্ত খবরে বেনাপোল স্থলবন্দরে চাল আমদানি ও খালাস বন্ধ রেখেছেন আমদানিকারকরা। গত ছয় দিন ধরে চাল খালাস না করে এই স্থলবন্দরের ভেতর পড়ে আছে প্রায় ৩১০টি ট্রাক।

দেশের বাজারে চালের দাম স্বাভাবিক রাখতে ও দ্রুত চালের মজুদ বাড়াতে চাল আমদানিতে পুরোপুরি শুল্ক প্রত্যাহারের বিষয়ে খাদ্য মন্ত্রণালয় থেকে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে চিঠি দেওয়া হয়। গত ৭ আগস্ট মিডিয়ায় এমন খবর প্রকাশের পর থেকেই বিন্দর থেকে চাল খালাস বন্ধ রেখেছেন আমদানিকারকরা।

চাল আমদানিতে শুল্কহার যখন ২৮ ভাগ ছিল, তখন বেনাপোল বন্দর দিয়ে চালের আমদানি প্রায় বন্ধ ছিল। গত ২০ জুন চাল আমদানিতে শুল্কহার কমিয়ে ১০ ভাগ নির্ধারণ করার পর বন্দর দিয়ে চালের আমদানি বাড়ে। বর্তমানে বন্দর দিয়ে প্রতিদিন ১০০ ট্রাক চাল আমদানি হচ্ছে।

কিন্তু গত কদিন ধরে চাল আমদানি কিংবা আমদানিকৃত চাল খালাস করছেন না আমদানিকারকরা। বেনাপোল বন্দরের সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট আ. খালেক জানান, আমদানিকারকরা ট্রাকগুলো থেকে চাল খালাস না নিয়ে শুল্ক প্রত্যাহার-সংক্রান্ত খবরের বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করছেন।

বেনাপোল সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মফিজুর রহমান সজন জানান, দেশের বাজারে চালের দাম সহনীয় পর্যায়ে রাখতে সরকার চাল আমদানিতে আরোপিত শুল্ক প্রত্যাহার করে নেবে এমন আলোচনা চলছে গত কয়েক দিন ধরে। এর ওপর গত ৭ আগস্ট সোমবার এ-সংক্রান্ত খবর পত্রিকায় প্রকাশিত হওয়ায় বেনাপোল বন্দরের আমদানিকারকরা ভারত থেকে আমদানিকৃত চাল খালাস করছেন না। কারণ সরকার চাল আমদানির শুল্ক প্রত্যাহার করে নিলে তারা ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। বন্দরে তিন শতাধিক চালের ট্রাক আটকা পড়ে আছে।

এ ছাড়া শুল্ক প্রত্যাহারের খবরে বন্দর দিয়ে চালের আমদানি কমিয়ে দিয়েছেন আমদানিকারকরা। এর ওপর আবার গত বুধবারে চাল আমদানিতে শুল্কহার ১০ ভাগ থেকে কমিয়ে ৫ ভাগ করতে মন্ত্রিসভায় সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে খবর প্রকাশিত হয়। কিন্তু এর কোনো কাগজপত্র বা আদেশের কপি কাস্টমসে আসেনি। এতে করে আমদানিকারকরা দ্বিধায় আছেন।

বর্তমানে চাল আমদানিতে যে ১০ ভাগ শুল্ক আরোপ রয়েছে, তাতে প্রতি কেজি চালে তিন থেকে সাড়ে তিন টাকা শুল্ক দিতে হচ্ছে। যদি এই ১০ ভাগ শুল্ক প্রত্যাহার করে নেয়া হয়, তাহলে দেশের বাজারে চালের দাম কিছুটা কমতে পারে।

বেনাপোল বন্দরের উপ-পরিচালক রেজাউল ইসলাম জানান, আগে বেনাপোল বন্দর দিয়ে গড়ে প্রতিদিন ১০০ ট্রাক চাল আমদানি হতো এবং প্রতিদিনই সেসব চাল খালাস হয়ে যেত। কিন্তু চাল আমদানিতে আরোপিত ১০ ভাগ শুল্ক প্রত্যাহার করবে সরকার এমন খবর প্রকাশের পর গত সোমবার থেকেই এই বন্দর থেকে চাল খালাস করছেন না আমদানিকারকরা।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।

সর্বশেষ খবর



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

বাসা#৪৯, রোড#০৮, তুরাগ, ঢাকা।
বার্তা কক্ষ : 01781804141
ইমেইল : timesofbengali@gmail.com

 

© এ.আর খান মিডিয়া ভিশন এর অঙ্গ প্রতিষ্ঠান

      সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার টাইমস্ অফ বেঙ্গলী .কম

কারিগরি সহযোগিতায় এ.আর খান হোস্ট