রাত ৯:১৪ | বৃহস্পতিবার | ৫ই আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২১শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

শান্তির জাতীয় সংগীতে একসঙ্গে ভারত-পাকিস্তান

পাকিস্তানের ৭০ তম স্বাধীনতা দিবস আজ। আগামীকাল ভারত পালন করবে নিজের ৭০ তম স্বাধীনতা দিবস। প্রতিবেশী দুই দেশের বৈরিতা নতুন নয়। কাশ্মির নিয়ে সাম্প্রতিক সময়ে দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনার পারদ আরো ওপরে উঠেছে।

এমন প্রেক্ষাপটে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে ভারত এবং পাকিস্তানের একদল তরুণ শিল্পীর গাওয়া একটি গান, যাকে উদ্যোক্তারা বলছেন ‘পিস অ্যানথেম’ বা শান্তির জাতীয় সঙ্গীত।

‘ভয়েস অব রাম’ নামে শান্তির পক্ষে প্রচারণা চালানো ফেসবুক ভিত্তিক একটি গ্রুপ গানটি পোষ্ট করেছে। ১২ ঘণ্টার মধ্যেই প্রায় সাড়ে তিন লাখ বার দেখা হয়েছে ভিডিওটি। দশ হাজারের মত শেয়ার করা হয়েছে গানটি।

ভিডিওর শুরুতেই পর্দায় ভেসে ওঠে একটি বাক্য “শিল্পের জন্য আমরা যখন সীমান্ত খুলে দেই, তখন শান্তির দেখা মেলে”।

দেখা যায়, একটি গানেরই প্রথম অংশে পাকিস্তানের জাতীয় সঙ্গীত ‘পাক সার জমিন সাদ বাদ’ গাইছেন একদল শিল্পী। পরের অংশে সেই শিল্পীদেরই দেখা যায় ভারতের জাতীয় সঙ্গীত ‘জনগনমন অধিনায়ক জয় হে’ গাইছেন।

এদের কাউকে কাউকে রেকর্ডিং স্টুডিও থেকে, আবার কাউকে কাউকে দুই দেশের বিভিন্ন লোকেশনে গানে গলা মেলাতে দেখা যায়। গানটি শেষে পর্দায় ভেসে ওঠে “আসুন শান্তি পক্ষে দাঁড়াই”।

‘ভয়েস অব রাম’ এর প্রধান চলচ্চিত্রকার এবং রাজনৈতিক আন্দোলন কর্মী রাম সুব্রামানিয়ন বলেছেন, অনেক মানুষই আছেন যারা শান্তির পক্ষে কথা বলতে ভয় পায়। তাদের অযৌক্তিক ভীতি দূর করার জন্য এই ভিডিও।

গানটি নিয়ে এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে তুমুল আলোচনা সমালোচনা। পাকিস্তানের ডন পত্রিকা একে ‘অবাক করা’ উপহার হিসেবে আখ্যা দিয়ে বলছে গানটি শুনতে বেশ ভালো।

গত বছর কাশ্মির নিয়ে সীমান্তে নতুন করে উত্তেজনা শুরু হবার পর থেকে দুই তরফের হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। দুই দেশের মধ্যে শান্তির কোন উদ্যোগ বা বিনিময়কে উভয় দেশের জাতীয়তাবাদীরা বিশ্বাসঘাতক বলে আখ্যায়িত করার একটি সাধারণ প্রবণতা দুই দেশেই আছে।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» এইচএসসি পরীক্ষা ২০২১ এর ফরম পূরণ স্থগিত

» ঘরবন্দী শিশুদের মানসিক বিকাশের জন্য প্রীতি ফুটবল ম্যাচ

» স্বজনরা গুম হওয়া ব্যক্তিদের ফেরার অপেক্ষায়

» কুমিল্লায় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব পরিষদের মহানগর শাখা কমিটির পরিচিতি ও  আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

» বরুড়ায় অপকর্মে বাঁধা দেওয়ায় বাড়িতে হামলার অভিযোগ

» বরুড়ায় ইউপি সদস্যের হাতে মহিলাসহ ৩জন আহতের অভিযোগ

» স্বেচ্ছাসেবক লীগ পাবনা জেলা শাখার কমিটির অনুমোদন- ডাবলু সভাপতি ও রুহুল আমিন সাধারণ সম্পাদক

» পাবনায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণে বিরোধিতার প্রতিবাদে স্বেচ্ছাসেবক লীগের মানববন্ধন

» তুরাগে বেওয়ারিশ কুকুরের অত্যাচারে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী

» উত্তরায় অস্ত্রসহ ৩ ছিনতাইকারীকে আটক

» তুরাগে নেই খেলার মাঠ ও বিনোদন কেন্দ্র, বাধাগ্রস্থ হচ্ছে শিশুর স্বাভাবিক বিকাশ

» নিখোজ সংবাদ

» এস এসসি পরীক্ষায় উর্ত্তীর্ণ মেধাবীদের শুভেচ্ছা ও অভিন্দন

» গায়ে কেরোসিন ঢেলে ‘গৃহবধূর’ আগুনে পুড়িয়ে হত্যা

» ‘ফণী’ বাংলাদেশে ৬ ঘণ্টা অবস্থান করবে

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

বাসা#৪৯, রোড#০৮, তুরাগ, ঢাকা।
বার্তা কক্ষ : 01781804141
ইমেইল : timesofbengali@gmail.com

 

© এ.আর খান মিডিয়া ভিশন এর অঙ্গ প্রতিষ্ঠান

      সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার টাইমস্ অফ বেঙ্গলী .কম

কারিগরি সহযোগিতায় এ.আর খান হোস্ট

,

শান্তির জাতীয় সংগীতে একসঙ্গে ভারত-পাকিস্তান

পাকিস্তানের ৭০ তম স্বাধীনতা দিবস আজ। আগামীকাল ভারত পালন করবে নিজের ৭০ তম স্বাধীনতা দিবস। প্রতিবেশী দুই দেশের বৈরিতা নতুন নয়। কাশ্মির নিয়ে সাম্প্রতিক সময়ে দুই দেশের মধ্যে উত্তেজনার পারদ আরো ওপরে উঠেছে।

এমন প্রেক্ষাপটে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে ভারত এবং পাকিস্তানের একদল তরুণ শিল্পীর গাওয়া একটি গান, যাকে উদ্যোক্তারা বলছেন ‘পিস অ্যানথেম’ বা শান্তির জাতীয় সঙ্গীত।

‘ভয়েস অব রাম’ নামে শান্তির পক্ষে প্রচারণা চালানো ফেসবুক ভিত্তিক একটি গ্রুপ গানটি পোষ্ট করেছে। ১২ ঘণ্টার মধ্যেই প্রায় সাড়ে তিন লাখ বার দেখা হয়েছে ভিডিওটি। দশ হাজারের মত শেয়ার করা হয়েছে গানটি।

ভিডিওর শুরুতেই পর্দায় ভেসে ওঠে একটি বাক্য “শিল্পের জন্য আমরা যখন সীমান্ত খুলে দেই, তখন শান্তির দেখা মেলে”।

দেখা যায়, একটি গানেরই প্রথম অংশে পাকিস্তানের জাতীয় সঙ্গীত ‘পাক সার জমিন সাদ বাদ’ গাইছেন একদল শিল্পী। পরের অংশে সেই শিল্পীদেরই দেখা যায় ভারতের জাতীয় সঙ্গীত ‘জনগনমন অধিনায়ক জয় হে’ গাইছেন।

এদের কাউকে কাউকে রেকর্ডিং স্টুডিও থেকে, আবার কাউকে কাউকে দুই দেশের বিভিন্ন লোকেশনে গানে গলা মেলাতে দেখা যায়। গানটি শেষে পর্দায় ভেসে ওঠে “আসুন শান্তি পক্ষে দাঁড়াই”।

‘ভয়েস অব রাম’ এর প্রধান চলচ্চিত্রকার এবং রাজনৈতিক আন্দোলন কর্মী রাম সুব্রামানিয়ন বলেছেন, অনেক মানুষই আছেন যারা শান্তির পক্ষে কথা বলতে ভয় পায়। তাদের অযৌক্তিক ভীতি দূর করার জন্য এই ভিডিও।

গানটি নিয়ে এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে তুমুল আলোচনা সমালোচনা। পাকিস্তানের ডন পত্রিকা একে ‘অবাক করা’ উপহার হিসেবে আখ্যা দিয়ে বলছে গানটি শুনতে বেশ ভালো।

গত বছর কাশ্মির নিয়ে সীমান্তে নতুন করে উত্তেজনা শুরু হবার পর থেকে দুই তরফের হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। দুই দেশের মধ্যে শান্তির কোন উদ্যোগ বা বিনিময়কে উভয় দেশের জাতীয়তাবাদীরা বিশ্বাসঘাতক বলে আখ্যায়িত করার একটি সাধারণ প্রবণতা দুই দেশেই আছে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।

সর্বশেষ খবর



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

বাসা#৪৯, রোড#০৮, তুরাগ, ঢাকা।
বার্তা কক্ষ : 01781804141
ইমেইল : timesofbengali@gmail.com

 

© এ.আর খান মিডিয়া ভিশন এর অঙ্গ প্রতিষ্ঠান

      সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার টাইমস্ অফ বেঙ্গলী .কম

কারিগরি সহযোগিতায় এ.আর খান হোস্ট