রাত ৮:০১ | বৃহস্পতিবার | ৫ই আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ২১শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

মোবাইল প্যাকেজে ‘শুভঙ্করের ফাঁকি’, ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ

মোবাইল ফোন অপারেটরদের প্যাকেজে গ্রাহকরা ‘শুভঙ্করের ফাঁকিতে’ পড়ছে কি না এবং তাদের অভিযোগের বিষয়ে কী ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে সে বিষয়ে প্রতিবেদন দিতে বিটিআরসিকে নির্দেশ দিয়েছে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ।

মঙ্গলবার ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের উপসচিব মাজেদা ইয়াসমীন স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত একটি চিঠি বিটিআরসি চেয়ারম্যানকে পাঠানো হয়।

এতে মোবাইল ফোন অপারেটরদের বিভিন্ন প্যাকেজের শর্ত যাচাই করে প্রতিবেদন দিতে আগামী ৩১ অগাস্ট সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে।

বাংলাদেশে মোবাইল অপারেটরগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি গ্রাহক রয়েছে গ্রামীণফোনের। বিটিআরসির হিসাবে তাদের গ্রাহক সংখ্যা ৫ কোটি ৯৩ লাখ, একীভূত হওয়ার পর রবি-এয়ারটেল মিলে ৩ কোটি ৫০ লাখ, বাংলালিংকের ৩ কোটি ১৩ লাখ এবং রাষ্ট্রায়ত্ত অপারেটর টেলিটকের গ্রাহক সংখ্যা ৩৭ লাখ।

১৬ কোটি মানুষের বাংলাদেশে ইন্টারনেট গ্রাহক এখন প্রায় অর্ধেক, যাদের অধিকাংশই মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহার করেন। চলতি বছর ফেব্রুয়ারি শেষের তথ্য হিসেবে বর্তমানে দেশে ইন্টারনেট গ্রাহকের সংখ্যা ৬ কোটি ৭২ লাখ ৪৫ হাজার।

চিঠিতে বলা হয়, মোবাইল ফোন অপারেটররা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন আকর্ষণীয় প্যাকেজ অফার দিয়ে থাকে। এসব প্যাকেজ নিয়ে ভোক্তারা নানা অভিযোগ উত্থাপন করেন। ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ এবং অভিযোগ গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করা বাঞ্ছনীয়।

মোবাইল অপারেটরদের বিভিন্ন প্যাকেজ মূল্যায়ন করে বিভিন্ন অফারে নির্ধারিত মূল্য যৌক্তিকভাবে নির্ধারণ করা হয়েছে কি না, ভোক্তা কোনোভাবে প্রতারিত হচ্ছে কি না বা অফারে কোনো ‘শুভঙ্করের ফাঁকি’ রয়েছে কি না তা জানাতে বলা হয়েছে বিটিআরসিকে।

এছাড়া ভোক্তারা অভিযোগ করে থাকলে তার সমাধান হয়েছে কি না, না হয়ে থাকলে বিটিআরসি কী ব্যবস্থা নিয়েছে তাও জানাতে হবে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগকে।

গত বছর নভেম্বরে মোবাইল অপারেটরদের সেবা নিয়ে বিটিআরসির গণশুনানিতে নেটওয়ার্ক সমস্যা, কলড্রপ, ইন্টারনেটে ধীরগতি, প্যাকেজের নামে ‘প্রতারণা’ ও অহেতুক এসএমএস’র অভিযোগ করেন গ্রাহকরা।

গত বছর নভেম্বরে মোবাইল অপারেটরদের সেবা নিয়ে বিটিআরসির গণশুনানিতে নেটওয়ার্ক সমস্যা, কলড্রপ, ইন্টারনেটে ধীরগতি, প্যাকেজের নামে ‘প্রতারণা’ ও অহেতুক এসএমএস’র অভিযোগ করেন গ্রাহকরা।

দেশে ইন্টারনেট গ্রাহক সংখ্যা বাড়লেও গ্রাহকরা প্রায়ই উচ্চমূল্যের পাশাপাশি ইন্টারনেট ধীরগতি, নেটওয়ার্ক সমস্যা, সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়া ও ব্যবহারের চেয়ে বেশি টাকা কেটে নেয়া ইত্যাদি বিষয়ে অভিযোগ করে আসছেন।

গ্রাহকদের কথা বিবেচনা করে গত নভেম্বরে গণশুনানির আয়োজন করে বিটিআরসি।

মোবাইল অপারেটরদের সেবা নিয়ে বিটিআরসির গণশুনানিতে গ্রাহকরা নেটওয়ার্ক সমস্যা, কলড্রপ, ইন্টারনেটে ধীরগতি, প্যাকেজের নামে ‘প্রতারণা’ ও অহেতুক এসএমএস’র বিষয়গুলো তুলে ধরেন।

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ



সর্বশেষ খবর



» এইচএসসি পরীক্ষা ২০২১ এর ফরম পূরণ স্থগিত

» ঘরবন্দী শিশুদের মানসিক বিকাশের জন্য প্রীতি ফুটবল ম্যাচ

» স্বজনরা গুম হওয়া ব্যক্তিদের ফেরার অপেক্ষায়

» কুমিল্লায় বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব পরিষদের মহানগর শাখা কমিটির পরিচিতি ও  আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

» বরুড়ায় অপকর্মে বাঁধা দেওয়ায় বাড়িতে হামলার অভিযোগ

» বরুড়ায় ইউপি সদস্যের হাতে মহিলাসহ ৩জন আহতের অভিযোগ

» স্বেচ্ছাসেবক লীগ পাবনা জেলা শাখার কমিটির অনুমোদন- ডাবলু সভাপতি ও রুহুল আমিন সাধারণ সম্পাদক

» পাবনায় বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণে বিরোধিতার প্রতিবাদে স্বেচ্ছাসেবক লীগের মানববন্ধন

» তুরাগে বেওয়ারিশ কুকুরের অত্যাচারে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী

» উত্তরায় অস্ত্রসহ ৩ ছিনতাইকারীকে আটক

» তুরাগে নেই খেলার মাঠ ও বিনোদন কেন্দ্র, বাধাগ্রস্থ হচ্ছে শিশুর স্বাভাবিক বিকাশ

» নিখোজ সংবাদ

» এস এসসি পরীক্ষায় উর্ত্তীর্ণ মেধাবীদের শুভেচ্ছা ও অভিন্দন

» গায়ে কেরোসিন ঢেলে ‘গৃহবধূর’ আগুনে পুড়িয়ে হত্যা

» ‘ফণী’ বাংলাদেশে ৬ ঘণ্টা অবস্থান করবে

যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

বাসা#৪৯, রোড#০৮, তুরাগ, ঢাকা।
বার্তা কক্ষ : 01781804141
ইমেইল : timesofbengali@gmail.com

 

© এ.আর খান মিডিয়া ভিশন এর অঙ্গ প্রতিষ্ঠান

      সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার টাইমস্ অফ বেঙ্গলী .কম

কারিগরি সহযোগিতায় এ.আর খান হোস্ট

,

মোবাইল প্যাকেজে ‘শুভঙ্করের ফাঁকি’, ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ

মোবাইল ফোন অপারেটরদের প্যাকেজে গ্রাহকরা ‘শুভঙ্করের ফাঁকিতে’ পড়ছে কি না এবং তাদের অভিযোগের বিষয়ে কী ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে সে বিষয়ে প্রতিবেদন দিতে বিটিআরসিকে নির্দেশ দিয়েছে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ।

মঙ্গলবার ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের উপসচিব মাজেদা ইয়াসমীন স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত একটি চিঠি বিটিআরসি চেয়ারম্যানকে পাঠানো হয়।

এতে মোবাইল ফোন অপারেটরদের বিভিন্ন প্যাকেজের শর্ত যাচাই করে প্রতিবেদন দিতে আগামী ৩১ অগাস্ট সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে।

বাংলাদেশে মোবাইল অপারেটরগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি গ্রাহক রয়েছে গ্রামীণফোনের। বিটিআরসির হিসাবে তাদের গ্রাহক সংখ্যা ৫ কোটি ৯৩ লাখ, একীভূত হওয়ার পর রবি-এয়ারটেল মিলে ৩ কোটি ৫০ লাখ, বাংলালিংকের ৩ কোটি ১৩ লাখ এবং রাষ্ট্রায়ত্ত অপারেটর টেলিটকের গ্রাহক সংখ্যা ৩৭ লাখ।

১৬ কোটি মানুষের বাংলাদেশে ইন্টারনেট গ্রাহক এখন প্রায় অর্ধেক, যাদের অধিকাংশই মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহার করেন। চলতি বছর ফেব্রুয়ারি শেষের তথ্য হিসেবে বর্তমানে দেশে ইন্টারনেট গ্রাহকের সংখ্যা ৬ কোটি ৭২ লাখ ৪৫ হাজার।

চিঠিতে বলা হয়, মোবাইল ফোন অপারেটররা বিভিন্ন সময় বিভিন্ন আকর্ষণীয় প্যাকেজ অফার দিয়ে থাকে। এসব প্যাকেজ নিয়ে ভোক্তারা নানা অভিযোগ উত্থাপন করেন। ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ এবং অভিযোগ গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করা বাঞ্ছনীয়।

মোবাইল অপারেটরদের বিভিন্ন প্যাকেজ মূল্যায়ন করে বিভিন্ন অফারে নির্ধারিত মূল্য যৌক্তিকভাবে নির্ধারণ করা হয়েছে কি না, ভোক্তা কোনোভাবে প্রতারিত হচ্ছে কি না বা অফারে কোনো ‘শুভঙ্করের ফাঁকি’ রয়েছে কি না তা জানাতে বলা হয়েছে বিটিআরসিকে।

এছাড়া ভোক্তারা অভিযোগ করে থাকলে তার সমাধান হয়েছে কি না, না হয়ে থাকলে বিটিআরসি কী ব্যবস্থা নিয়েছে তাও জানাতে হবে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগকে।

গত বছর নভেম্বরে মোবাইল অপারেটরদের সেবা নিয়ে বিটিআরসির গণশুনানিতে নেটওয়ার্ক সমস্যা, কলড্রপ, ইন্টারনেটে ধীরগতি, প্যাকেজের নামে ‘প্রতারণা’ ও অহেতুক এসএমএস’র অভিযোগ করেন গ্রাহকরা।

গত বছর নভেম্বরে মোবাইল অপারেটরদের সেবা নিয়ে বিটিআরসির গণশুনানিতে নেটওয়ার্ক সমস্যা, কলড্রপ, ইন্টারনেটে ধীরগতি, প্যাকেজের নামে ‘প্রতারণা’ ও অহেতুক এসএমএস’র অভিযোগ করেন গ্রাহকরা।

দেশে ইন্টারনেট গ্রাহক সংখ্যা বাড়লেও গ্রাহকরা প্রায়ই উচ্চমূল্যের পাশাপাশি ইন্টারনেট ধীরগতি, নেটওয়ার্ক সমস্যা, সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়া ও ব্যবহারের চেয়ে বেশি টাকা কেটে নেয়া ইত্যাদি বিষয়ে অভিযোগ করে আসছেন।

গ্রাহকদের কথা বিবেচনা করে গত নভেম্বরে গণশুনানির আয়োজন করে বিটিআরসি।

মোবাইল অপারেটরদের সেবা নিয়ে বিটিআরসির গণশুনানিতে গ্রাহকরা নেটওয়ার্ক সমস্যা, কলড্রপ, ইন্টারনেটে ধীরগতি, প্যাকেজের নামে ‘প্রতারণা’ ও অহেতুক এসএমএস’র বিষয়গুলো তুলে ধরেন।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।

সর্বশেষ খবর



এ বিভাগের অন্যান্য খবর



যোগাযোগ

বার্তা ও বাণিজ্যিক কার্যালয় –

বাসা#৪৯, রোড#০৮, তুরাগ, ঢাকা।
বার্তা কক্ষ : 01781804141
ইমেইল : timesofbengali@gmail.com

 

© এ.আর খান মিডিয়া ভিশন এর অঙ্গ প্রতিষ্ঠান

      সর্বস্বত্ব স্বাত্বাধিকার টাইমস্ অফ বেঙ্গলী .কম

কারিগরি সহযোগিতায় এ.আর খান হোস্ট